মিঠাপুকুরে চা বিক্রেতাকে কুপিয়ে হত্যা : স্ত্রী আটক

শেয়ার করুন

নিউজ ফলোআপ।। 

স্টাফ রিপোর্টার:

রংপুরের মিঠাপুকুরে গুলসান (৩৫) নামে এক চা বিক্রেতাকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় স্ত্রী সেলিনা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করছে মিঠাপুকুর থানা পুলিশ। আজ মঙ্গলবার (১৩অক্টোবর) বিকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তাকে আটক করা হয়।

সোমবার (১২ অক্টোবর) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে জায়গীরহাট স্ট্যান্ড থেকে চা দোকান বন্ধ করে বাসায় ফেরার পথে গুলসানকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এ ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন নিহতের বাবা। নিহত গুলশান উপজেলার রানীপুকুর ইউপির বলদীপুকুর মমিনপুর গ্রামের আব্দুল হকের ছেলে।

নিহতের স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাত দেড়টার দিকে জায়গীরহাট বাসস্ট্যান্ড থেকে চা দোকান বন্ধ করে দুর্গাপুরে ভাড়া বাসায় ফিরছিলেন গুলসান। পথিমধ্যে ব্র্যাক অফিসের কাছাকাছি পৌঁছলে হেলমেটধারী দুই ব্যাক্তি তাকে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। তার চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে গুরুতর আহত অবস্থায় গুলশান মিয়াকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন নিহতের বাবা আব্দুল হক।

নিহতের স্বজনরা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে এক যুবকের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন তার স্ত্রী। এতে বাধা দেয়ায় স্ত্রী ও তার পরকীয়া প্রেমিক ক্ষুব্ধ ছিল। তারাই পরিকল্পিতভাবে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।এর আগে এই পরকীয়ার ঘটনায় গ্রামে সালিশ বৈঠকও হয়েছিল।

মিঠাপুকুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় নিহত গুলশানের স্ত্রী সেলিনা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ। অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে বলেও জানান তিনি।

এম২৪নিউজ/আখতার