মিঠাপুকুরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অবস্থান

শেয়ার করুন

নিউজ ডেস্ক:

মিঠাপুকুরে বিয়ের দাবিতে সেনা সদস্য প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন প্রেমিকা। প্রেমিকার বাড়ি বদরগঞ্জ উপজেলার নাগেরহাট ইউনিয়নের গাছুয়াপাড়া গ্রামে। সে অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী৷ সেনা সদস্য রমজান আলী রওশন (২৭) মিঠাপুকুর উপজেলার ময়েনপুর গাছুয়াপাড়া গ্রামের সেরাজুল মিয়ার ছেলে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত চার মাস আগে বিয়ের জন্য পাত্রী দেখার সুবাদে উভয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সম্পর্কের সুযোগে মেয়ের বাড়িতে বেশ কয়েকবার যাতায়াতও করেন ছেলে। তাদের ভালবাসার বন্ধনকে স্থায়ী করতে সেনা সদস্য রওশন বিয়ের দিনতারিখ ঠিক করার জন্য তার বাবা-মাকে প্রেমিকা মেয়েটির বাড়িতে পাঠান। কিন্তু ছেলের বাবা তার ছেলের সাথে ওই মেয়ের বিয়ে দিতে অসম্মতি জানিয়ে অন্যত্র বিয়ে ঠিক করেন। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ছেলের বাড়িতে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা চলছিল। প্রেমিকা খবর পেয়ে প্রেমিকের বাড়িতে এসে হাজির হয়।

জানা যায়, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সৈনিক পদে চাকরি করেন রমজান আলী রওশন। খবর পেয়ে ময়েনপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোকছেদুল আলম মুকুল ও ইউপি সদস্য শাহ মোহাম্মদ জুলফিকার আলম  মেয়েটিকে অনেক বোঝাবুঝির পরও কোন সমাধান না হওয়ায় মঙ্গলবার বিষয়টির সমাধানের কথা বলে তারা সেখান থেকে চলে যান। মেয়েটি ছেলেটির বাড়িতেই রয়েছে।

অনশনে থাকা প্রেমিকা বলেন, প্রায় ২/৩ মাস আগে রওশনের সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সে আমাকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে চাকুরি করে বলে জানায়। তার সাথে আমার বেশকয়েকবার দেখা হয়। সে আমাকে বিয়ে করবে বলে যা ইচ্ছে তাই করেছে।

রওশনকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তার মা বলেন, আমার ছেলের সাথে এই মেয়ের সম্পর্ক থাকলে আমাদের আগে বলতে পারতো। তার অভিভাবক আসতে পারতো কিন্তু হঠাৎ  বাড়িতে এসে উঠছে।

ময়েনপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোকছেদুল আলম মুকুল বলেন, মেয়ের অভিভাবক আসলে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে সিন্ধান্ত নেওয়া হবে।

এম২৪নিউজ/আখতার

Leave a Reply