বাঁচানো গেল না ছোট্ট আবিরকে

শেয়ার করুন

নিউজ ডেস্ক:

রংপুরের পীরগঞ্জে গলাকাটা ছয় বছর বয়সী আবিরকে শত চেষ্টা করেও বাঁচাতে পারেননি চিকিৎসকরা। মঙ্গলবার সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায় শিশুটি।

আবির উপজেলার কুমেদপুর ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ সবুজ মিয়ার ছেলে। অভিযুক্তের নাম বিটুল। ২২ বছর বয়সী বিটলু একই এলাকার বাটুল মিয়ার ছেলে।

কুমেদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বলেন, সোমবার বিকেলে কুমেদপুর ইউনিয়ন পরিষদের পেছনে আখিরা নদীতে গোসল করছিল আবির ও তার বড় ভাই আট বছরের আদনান। এ সময় আবিরকে ডেকে নদী থেকে ডাঙায় তুলে নিয়ে নিজের হাতে থাকা ধারালো কাঁচি দিয়ে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা চালান বিটুল। পরে আদনানের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে বিটুলকে হাতেনাতে ধরেন। এরপর ইউনিয়ন পরিষদের মাঠে নিয়ে মারধর করে বিটুলকে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

এছাড়া গুরুতর অবস্থায় আবিরকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু চিকিৎসকরা অনেক চেষ্টা করেও তাকে শেষ পর্যন্ত বাঁচাতে পারেননি।

পীরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল আউয়াল জানান, লাশ হাসপাতালে রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হবে। সূত্র: ডেইলী বাংলাদেশ

এম২৪নিউজ/আখতার

Leave a Reply