পীরগাছায় স্ত্রী-মেয়েকে কুপিয়ে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা, বড় মেয়ের মৃত্যু

শেয়ার করুন

নিউজ ডেস্ক:

রংপুরের পীরগাছায় পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রী ও দুই মেয়েকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে নিজেই নিজের গলাকেটে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে রশিদুল ইসলাম (৪০) নামে এক যুবক।

এ ঘটনায় বড় মেয়ে জিম (১১) ঘটনাস্থলেই নিহত এবং স্ত্রী জেসমীন আক্তার ও অপর মেয়ে (৭) গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে রমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (১৯ জুন) রাত পৌণে ৮টার দিকে উপজেলার মোংলাকুটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত জিম ওই এলাকার রশিদুল ইসলামের মেয়ে।

এলাকাবাসী জানায়, স্ত্রী জেসমীন আক্তারের সঙ্গে দীর্ঘদিন থেকে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল রশিদুল ইসলামের। রোববার সন্ধ্যার তাদের মধ্যে আবারো ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রী ও দুই মেয়েকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতারি কোপাতে থাকেন রশিদুল। এতে বড় মেয়ে জিমের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। এ সময় গুরুতর আহত হয় স্ত্রী জেসমীন আক্তার ও ছোট মেয়ে।  এরপর রশিদুল ইসলাম বিষপান করে নিজেই নিজের গলা ছুরি দিয়ে কেটে ফেলেন। এসময় তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে দ্রুত উদ্ধার করে রমেক হাসপাতালে পাঠান।

পীরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেস চন্দ্র বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে রশিদুল ও স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে রশিদুল তার স্ত্রী ও মেয়েকে কুপিয়ে নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

এম২৪নিউজ/আখতার

Leave a Reply