বিয়ের প্রলোভনে শিক্ষিকাকে ধর্ষণ : রংপুর জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি বহিষ্কার

শেয়ার করুন

নিউজ ডেস্ক:

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক স্কুল শিক্ষিকাকে ধর্ষণ ও ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণকে ‘কুরুচিপূর্ণ’ ভাষায় ব্যঙ্গ করার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরালের অভিযোগে জেলা রংপুর জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনিকে সভাপতি পদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

সোমবার রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, দলীয় নীতি-আদর্শ ও শৃঙ্খলাপরিপন্থী কাজে জড়িত থাকায় রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সিদ্দিকি রনিকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সুমন সরকারকে রংপুর জেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব দেয়া হলো।

এর আগে গত ৫ সেপ্টেম্বর রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানায় রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনির বিরুদ্ধে ভুয়া বিয়ে করে একাধিকবার ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন এক স্কুল শিক্ষিকা।

সেখানে প্রধান আসামি করে স্কুল শিক্ষিকা অভিযোগ করেন, প্রেমের সম্পর্কের জেরে ভুয়া বিয়ের নাটক সাজিয়ে দীর্ঘদিন তাকে ধর্ষণ করা হয়। এছাড়াও ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে কয়েকবার ভারতের বিভিন্নস্থানে নিয়ে গিয়েও তাকে ধর্ষণ করা হয়। এর বিচার চেয়ে ওই স্কুল শিক্ষিকা রংপুরে ও ঢাকায় বিভিন্নভাবে প্রতিবাদ জানায়। তবে মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

এম২৪নিউজ/আখতার