পুলিশ সদস্য ও তার স্ত্রীর অমানবিক নির্যাতনের শিকার ৭ বছরের গৃহকর্মী

শেয়ার করুন

অনলাইন ডেস্ক:

লালমনিরহাটের আদিতমারীতে আজহার আলী সুমন নামে এক পুলিশ সদস্য ও তার স্ত্রী ডেইজি বেগমের অমানবিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে এক শিশু গৃহকর্মী। হাসিনা নামে ৭ বছরের শিশুটি বর্তমানে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি।

নির্যাতনের শিকার হাসিনা বেগম লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার গোড়ল ইউনিয়নের শিবরাম বলাইরহাটের হাছেন আলীর মেয়ে। সে আদিতমারী উপজেলার সঠিবাড়ি গ্রামে তার নানাবাড়িতে থাকতো।

নির্যাতনের শিকার শিশুর পরিবার ও হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, এক বছর আগে আদিতমারী উপজেলার তালুক দুলালী গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে পুলিশ পরিদর্শক আজহার আলী সুমন তার ঢাকার বাসায় গৃহকর্মী হিসেবে হাসিনা বেগমকে নিয়ে যান। এরপর থেকেই তাকে পরিবারের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করতে দেয়নি। উল্টো কারণে অকারণে শারীরিক নির্যাতন করা হতো। দিনের পর দিন নির্যাতনে শিশু হাসিনা গুরুতর অসুস্থ হয় পড়লে রোববার (২৯ আগস্ট) একজন কনস্টবলের মাধ্যমে অসুস্থ শিশু হাসিনাকে তার বাড়িতে পাঠিয়ে দেন ওই পুলিশ পরিদর্শক। বাড়ি পৌঁছে সারা শরীরের আঘাতের চিহ্ন দেখিয়ে নিজের ওপর হওয়া নির্যাতনের লোমহর্ষক বর্ণনা দেয় হাসিনা। পরে পরিবারের লোকজন তাকে ওই রাতেই লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। 

শিশু হাসিনা বেগম বলে, টাঙ্গাইলের ওসি আজহার আলী সুমনের বাসায় কাজ করতাম। সেখানে কারণে অকারণে মারপিট করত, খুব কষ্ট দিতো তারা। বাড়ির কারো সঙ্গে কথাও বলতে দেয়নি। ব্যথার কারণে শরীরে হাত দিতে পারছি না।

লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের আরএমও ডা. গোলাম মোর্শেদ দোলন বলেন, শিশু হাসিনার শরীরে পুরাতন ও নতুন আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বর্তমানে সে আশঙ্কামুক্ত।

আদিতমারী থানার ওসি সাইফুল ইসলাম বলেন, শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের খবরটি লোকমুখে ও ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পেরেছি। ভুক্তভোগী পরিবার থানায় এলে বিষয়টি পরিষ্কারভাবে জানা যাবে। সূত্র: ডেইলী বাংলাদেশ

এম২৪নিউজ/আখতার

Leave a Reply